«

»

এই লেখাটি 651 বার পড়া হয়েছে

Print this প্রকাশনা

উন্নয়ন, উন্নয়ন ধারনা, উন্নয়ন কৌশল

কিছু কথাঃ

আমরা নিজের এলাকার উন্নয়ন চাই, সমাজের উন্নয়ন চাই, দেশের উন্নয়ন চাই । উন্নয়ন শব্দটির ব্যাখ্যা আমাদের বিভিন্নজনের কাছে বিভিন্নরকম । কেউ কেউ মনে করেন সমাজের প্রত্যেকটি মানুষের অর্থনৈতিক সম্বৃদ্ধি মানেই উন্নয়ন, আবার কেউবা মনে করেন, সমাজের প্রত্যেকটি মানুষের মানষিক বা চারিত্রিক উন্নয়নই উন্নয়ন, আবার কারোর কাছে জিডিপি বৃদ্ধি মানেই উন্নয়ন । সুতরাং, উন্নয়ন শব্দটির মর্মার্থ আমাদের বিভিন্নজনের কাছে বিভিন্ন রকম ।

কিন্তু এই উন্নয়ন শব্দটির সাথে অর্থনৈতিক, সামাজিক, রাজনৈতিক বিভিন্ন বিষয় জড়িত রয়েছে । এমনকি, জড়িত রয়েছে সমস্যা, ঝুঁকি, প্রতিবন্ধকতা, সুযোগ ইত্যাদি বিষয়াবলীও । তাই উন্নয়ন নিয়ে আলোকপাত করার আগে সমস্যা বিষয়ে কিছু কথা হয়ে যাক………

সমস্যা নির্ণয়ের ক্ষেত্রে আমাদের সবচেয়ে বড় সমস্যাটি হল, সমস্যাকে ঠিকমত চিহ্নিতকরন করতে না পারা । যাকে আমরা “সমস্যা দেখার সমস্যা” হিসেবে অভিহিত করতে পারি । এই সমস্যা দেখার সমস্যার কারন হিসেবে দুইটি বিষয়ের উপর আলোকপাত করা যেতে পারে ।

     ১। সমস্যার প্রকাশকে আসল সমস্যা ও সমস্যার কারন হিসেবে দেখা ।

     ২। সমাধানের দৃষ্টিকোণ থেকে দেখা ( Solution point of view )

এই পর্যায়ে একটি বৃক্ষের কথা চিন্তা করা যাক । বৃক্ষটির মূল বা শেখড়কে মূল সমস্যা, কান্ড আর ডালপালাগুলিকে আসল সমস্যা আর পাতাগুলিকে ধরে নিই সমস্যার প্রকাশ হিসেবে । বৃক্ষটির নাম দেওয়া হল “সমস্যা বৃক্ষ ( Problem tree )” এবার বৃক্ষের আদলে সমস্যাগুলিকে সাজাতে থাকি । কোনটি মূল সমস্যা, কোনটি আসল সমস্যা আর কোনটিই বা সমস্যার প্রকাশ ?

পার্বত্য চট্টগ্রামকে মডেল ধরে নিয়ে সমস্যা বৃক্ষটি তৈরি করি । সেটেলার সমস্যা, ভুমি আগ্রাসন, বেকারত্ব, সেনা সমস্যা, দূর্নীতি, ধর্ষণ, লিঙ্গ বৈষম্য, সাংষ্কৃতিক আগ্রাসন, জাতিয়তাবাদ, সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা, পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়ন, শিক্ষার অভাব, সুচিকিৎসার অভাব, অপরাজনীতি, ভ্রাতৃঘাতি সংঘাত ইত্যাদি ইত্যাদি সমস্যা চোখের সামনে ভাসতে থাকে । এত সব সমস্যার ভিড়ে কোনটি মূল সমস্যা, কোনটি আসল সমস্যা আর কোনটিই বা সমস্যার প্রকাশ ?

এখানেই সাধারনত আমরা তালগোলটা পাকিয়ে ফেলি । হয়তো সেনা শাসন, সেটেলার সমস্যা আর ভুমি আগ্রাসনকে ধরছি মূল সমস্যা । আসল সমস্যা হিসেবে ধরছি সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা, ভ্রাতৃঘাতি সংঘাত, ধর্ষন ইত্যাদিকে আর সমস্যার প্রকাশ হিসেবে ধরছি দূর্ণীতি, বেকারত্ব, শিক্ষার অভাব, সুচিকিৎসার অভাব ইত্যাদিকে । কিন্তু আদৈ এসব সমস্যা কি মূল আর আসল সমস্যা ? না, আসলে আমরা যেসব সমস্যাগুলিকে মূল সমস্যা, আসল সমস্যা আর সমস্যার প্রকাশ হিসেবে মনে করছি সেসব সমস্যাগুলির সবগুলিই আসলে সমস্যার প্রকাশ । এখন প্রশ্ন হতেই পারে, তাহলে মূল সমস্যা, আসল সমস্যা কোনটি বা কোনগুলি ?

আমরা ধরে নিয়েছিলাম সেটেলার সমস্যা, সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা, ভ্রাতৃঘাতি সংঘাত হল আসল সমস্যা । এখন কিছু প্রশ্নের উত্তর খুজে নেওয়া যাক । সেটেলার সমস্যাকে কেন সমস্যা মনে করছি ? হয়তো উত্তর হবে, ভুমি আগ্রাসন, নারী নির্যাতন ইত্যাদির জন্য দায়ী । ভুমি আগ্রাসন হলে কি হয় ? পাহাড়িরা তাদের প্রথাগত ভুমি অধিকার থেকে বঞ্চিত হয় । হ্যা, এই বঞ্চনাই হল আসল সমস্যা । তেমনি প্রশ্ন হতে পারে নারী নির্যাতন কারা করে ? পুরুষেরা । পুরুষেরা নারী নির্যাতন কেন করে ? যৌন লালসা চরিতার্থে । যৌন লালসা চরিতার্থ করে কিভাবে ? জোর করে বা আগ্রাসন । আগ্রাসনটাই হল আসল সমস্যা । এভাবেই সেনা শাসন, ভ্রাতৃঘাতি সংঘাত ইত্যাদি সমস্যার আসল সমস্যাগুলি খুজে নিতে হবে । এভাবে খুজতে থাকলে শেষ পর্যায়ে হয়তো মাত্র কয়েকটি আসল সমস্যা খুজে পাওয়া যাবে । শোষন, বঞ্চনা, আগ্রাসন, আধিপত্য ইত্যাদিই খুজে পাওয়া যাবে আসল সমস্যায় । এই আসল সমস্যাগুলিই বা হচ্ছে কেন ? কারন শোষন, বঞ্চনা, আধিপত্য, আগ্রাসন এইসব বিষয়গুলো রয়েছে আমাদের সমাজে, রাষ্ট্রে, রাষ্ট্রের সিস্টেমে, পুঁজিবাদী সিস্টেমে মানে কাঠামোয় ।

 

সমস্যা বিশ্লেষনে দৃষ্টিভঙ্গিঃ

উপরে আমরা আলোচনা করেছি, সমস্যা দেখার সমস্যা, মূল সমস্যা, আসল সমস্যা আর সমস্যার প্রকাশ নিয়ে । এখন আমরা আলোচনা করব, সমস্যা বিশ্লেষনের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে । সমস্যা বিশ্লেষণ বা সমস্যার কারন নিয়ে আমাদের বিভিন্নজনের রয়েছে বিভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি । ধরা যাক, X নামের অষ্টাদশী নারীটি জনৈক Y নামের পুরুষটির দ্বারা ধর্ষিত হল । এখন, এই বিষয়টিকে আমরা কে কিভাবে বিশ্লেষণ করছি ? কেউ হয়তো বলবেন, মেয়েটি পূর্বজন্মে পাপ করেছিল । তাই সেই পাপের শাস্তি ভোগ করেছে অথবা মেয়েটির কপালে এই কর্মফলই লেখা ছিল, তাই সেই ফল ভোগ করেছে । এই ধরনের দৃষ্টিভঙ্গিকে আমরা বলতে পারি ঐদ্রজালিক বা ভাগ্যবাদী দৃষ্টিভঙ্গি ( Magical ) আবার কেউবা বলছি, মেয়েটির পোশাকে সমস্যা ছিল, মেয়েটির ধর্ষিত হবার কারনটি সাম্প্রদায়িক, কিংবা মেয়েটি খুবই সহজ-সরল ছিল । এই ধরনের দৃষ্টিভঙ্গিকে আমরা বলতে পারি, অতি সরল দৃষ্টিভঙ্গি ( Naive ) । আবার আমাদেরই মধ্যে কেউবা বলছেন, না এই ঘটনা ভাগ্যবাদীতা বা মেয়েটির অতি সরলতার কারনে হয়নি । বিভিন্ন ধরনের তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহের পর যাচাই-বাচাই করে বলা হচ্ছে মেয়েটির ধর্ষিত হওয়ার জন্য দায়ী এই সমাজ ব্যাবস্থা, এই রাষ্ট্র ব্যাবস্থা, এই পুঁজিবাদী ব্যাবস্থা । সমস্যা বিশ্লেষনের এই ধরনের দৃষ্টিভঙ্গিকে আমরা বলতে পারি, বিচারবাদী বা বিশ্লেষনাত্বক দৃষ্টিভঙ্গি ( Critical )

এখন নিজেকে যাচাই করে দেখুন, আপনি কোন দলে ?

 

                                                                      চলবে……

About the author

জুম্মো এডিসন

আমি বস্তুবাদী নাস্তিক ।

Permanent link to this article: http://chtbd.org/archives/3040

1 ping

  1. উন্নয়ন | ।।জুম্মো ব্লগ।।

    […] আগের পর্বে আমরা আলোচনা করেছিলাম সমস্যা, সমস্যা দেখার সমস্যা, মূল সমস্যা, আসল সমস্যা, সমস্যার প্রকাশ এবং সমস্যা বিশ্লেষণের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে । প্রথম পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন […]

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>