«

»

এই লেখাটি 1,067 বার পড়া হয়েছে

Print this প্রকাশনা

স্বার্থক জীবনে নারী/মেয়ে

স্বার্থক জীবনে নারী/মেয়ে

‘মা’ আমার প্রথম নারী যার স্তন পান করে বেড়ে উঠেছি/বড় হয়েছি । মা’ই আমার প্রথম বান্ধবী যার সাথে শেয়ার করেছি আমার সব লুক্কায়িত কথা, চাওয়া -পাওয়া । তারপর আমার ‘দিদি’ যার দুহাতের আদর এখনো শরীরে জড়িয়ে আছে, হয়ত থাকবে সারাজীবন । বিদ্যালয় জীবনে অনেক ত্রিপুরা এবং মারমা মেয়ের সাথে বন্ধুত্ব গড়ে উঠে । কলেজে বাঙালী মেয়ের সাথে গড়ে উঠে ঘনিষ্ঠতা । তারপর ভিনদেশে যখন পড়াশুনা করতে যাই অনেক দেশের মেয়ের সাথে গড়ে উঠে বন্ধুত্বতা এবং ঘনিষ্ঠতা । তারমধ্যে ভারতীয় – (বাঙালী,লাধাকি, তামিল, মনিপুরি), নেপালী, চাইনিচ এবং শ্রীলংকান । তারপর কর্মস্থলে পরিচয় ঘটে জাপানিস, কোরিয়ান, অষ্ট্রেলিয়ান, ভিয়েতনামিস, থাই, মালয়শিয়ান, সিঙ্গাপুরিয়ানসহ বেশ কয়েক জাতি এবং দেশের মেয়ের সাথে ।

কলেজের পর মেয়েদের সাথে কন্ফিডেন্টলি কথা বলেছি, প্লাস মনে স্থান করে নিয়েছি । জীবন সম্পর্কে যাকিছু শেখেছি বেশিরভাগ অংশ মেয়েদেরই অবদান, সেজন্য ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা পেতে হলে তারাই বেশি প্রাপ্য । মেয়েরা সাধারণঃত ছেলেদেরকে কর্মত এবং সৎ হিসেবে দেখতে বেশি পছন্দ করে আর তারা (মেয়েরা) চাই প্রিয়জনটি যাতে বেশি করে দেখাশোনা করে । কোন মেয়েকে ভালোবাসলে রীতিমতো দেখাশোনা করতে ভুলো না । আর কাছাকাছি হলে প্রতিদিন সম্ভব হয় একটা করে উপহার দেয়া অত্যাবশ্যক, যদিও সস্তা দামের কিছু ও হয় তাতে ক্ষতি নেই । প্রিয়তমা দূরে থাকলে বিশেষ দিনে শুভেচ্ছা কিংবা উপহার পাঠাতে ভুলো না । মেয়েরা স্বভাবগতভাবে নিজের সৌন্দর্যকে বেশি প্রাধান্য দিতে ভালোবাসে তাই রান্না স্বাদ না হলে ও খারাপ মন্তব্য করতে নেই । প্রতিদিন একটা কথাই বলবে “তোমাকে আজকে সুন্দর লাগছে/ খুব বেশি / এবং ইত্যাদি” । প্রশংসা করতে ভুলো না । এটাকে জীবনের সাথে মিলিয়ে নিতে পারলে দেখবে কোন প্রিয়তমা -প্রিয়জনকে ছেড়ে চলে যাবে না । ভালোবাসোতো ভালোবাসবে ।

মেয়েদেরকে শুধু সেক্স সীম্বল হিসেবে ব্যবহার করো না এতে জীবন সুখের হয় না । জীবনকে আজ অনেক স্বার্থক মনে করছি এজন্য যে আজ পর্যন্ত কোন মেয়েকে অপব্যবহার করিনি, পতিতা করিনি, ভিখারিনী করিনি । স্বার্থক এজন্য সকল জাতি এবং দেশের মেয়েদের সাথে ভালো ব্যবহার করে আমার স্বজাতির নাম রক্ষা করেছি । কোন জাতির সকল মানুষদের সম্পর্কে সরলীকরণভাবে খারাপ মন্তব্য করা ঠিক নয়, কারণ ব্যক্তিমাত্রই ইউনিক । আমার ভাইয়েরা হয়ত আমার কথাগুলো গুরুত্বসহকারে হৃদয়জ্ঞম করবেন” এই আশা রাখি ।

আর মেয়েদের সম্পর্কে ভালো ধারণা জন্মাক এটা আমি চাই । মেয়েরা ও ছেলেদের চাওয়াকে বুঝুক সেটা ও আমি চাই । সর্বোপরি দুজনের বুঝাবুঝি বেড়ে উঠে সুখের সংসার হউক এই কামনা রাখি ।

About the author

অমিত হিল

Permanent link to this article: http://chtbd.org/archives/1193

1 comment

  1. হেগাবগা চাংমা

    ধন্যবাদ অমিত দা। নিঃসন্দেহে সুন্দর একটি পোষ্ট।
    বাস্তবে সমাজের মুল্যবোধের থেলায় এমন হতে পারি নি। “ভালো ছেলে” হতে গিয়ে প্রেমের সদর দরজা থেকে ফেরত আসতে হয়েছে। একদিকে সমাজ এবং অন্যদিকে মানবিক ও জৈবিক তাড়না-এই দুয়ের মধ্যে সমাজকে প্রাধান্য দিতে গিয়ে হয়েছি মুখোশ ধারী চোর!
    >>> মুল্যবোধ বদলের সমাজের পরিমানগত পরিবর্তন শুরু হয়ছে![(আধুনিক হতে হবে না!)তবুও পজেটিভ]।সমাজে গুনগত পরিবর্তন হওয়া চাই।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>