«

»

এই লেখাটি 771 বার পড়া হয়েছে

Print this প্রকাশনা

আঞ্চলিক রাজনৈতিক কর্মীদের কি করলে হুশ আসবে একটু বলুন !!

blockquote>

আঞ্চলিক রাজনৈতিক কর্মীদের কি করলে হুশ আসবে একটু বলুন !!

অনেক দূঃখের দিন অতিবাহিত করার পর ভেবেছিলাম গুচ্ছকিছু সুখ কুঁড়িয়ে নেবো, ভ্রাতৃহত্যা বিরোধী আন্দোলনে থাকবে জোড়ালো সুর । ভেবেছিলাম থাকবে মানবতা আবেদনের পাশাপাশি রাজনৈতিক কর্মীদের “হ্যাঁ-বোধক” প্রতিধ্বনি । ভেবেছিলাম বয়ষ্ক মানুষ জেএসএসের নেতা ( জুম্মনেতা বলে আর লাভ নেই ) সন্তু লারমা আহবানে সাড়া দিবেন । ভেবেছিলাম ইউপিডিএফের নেতা প্রসিত খীসার থাকবে ভ্রাতৃহত্যা বন্ধের প্রতিশ্রুতি কিন্তু কিছুই হলো না । ভাবনাগুলো মিশে গেলো জাপানের সুনামির আগ্রাসনে; ব্যাংককের অপ্রত্যাশিত বৃষ্টিহীন বন্যার প্লাবনে । মরুভূমিতে সবুজ গাছের বনাঞ্চল গজিয়েছে যদি কেউ বলেন' হয়ত বিশ্বাস করবো তবুও জেএসএস এবং ইউপিডিএফের ঐক্যতা হয়েছে কেউ বললে আর বিশ্বাস জন্মাবে না -এমন আশংকা কাজ করছে মনে । বাস্তবতা অনেক কঠিন তবুও মেনে নিতে হয় ।

বুদ্ধের শিক্ষাতে যুদ্ধ -সংঘাতের মাধ্যমে শান্তি প্রতিষ্ঠার কথা কোথাও নেই, সেজন্য ব্লগার অডঙ চাকমা (অডঙ দা) প্রায়ই বুদ্ধের শিক্ষার মাধ্যমে জেএসএস এবং ইউপিডিএফের সংঘাত নিরসনের কথা বলতেন/লিখতেন । বুদ্ধের শিক্ষা মতে “আত্না বলতে কিছু নেই : তাই অহংকার, ক্ষমতা লোভ, রাজ্যসুখ, রাজ্যবিজয় কোনকিছুই স্থায়ী নয় ! সবকিছুর কারণ এবং কার্য সাপেক্ষে সৃষ্টি এবং বিলয় ঘটে ! জাগতিক সবকিছু যখন সৃষ্টি এবং বিলয়ের নীতিতে আবদ্ধ সেখানে আত্না নিয়ে গর্ববোধ করার কিছু নেই -যেহেতু আত্মা বলতে কিছুই নেই।” তাই বুদ্ধ ধর্মকে শান্তিবাদী ধর্ম হিসেবে অনেকেই অবহিত করে থাকলেও অনেকেই এক জীবনাদর্শন হিসেবেও গণ্য করেন । অন্য অনেক ধর্মে আত্নাকে চিরস্থায়ী অস্তিত্ব হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে তাই “পবিত্র যুদ্ধের” সুপারিশ করা হয়েছে । আজ এমনই আত্নাবিশ্বাসী যুদ্ধে লিপ্ত আছেন জুম্মজাতির কলঙ্কধারী কিছু সুবিধাবাদী নেতা । জেএসএসের মতে ইউপিডিএফের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়া একধরণের “হলি ওয়্যর” । ইউপিডিএফ মুদ্রার ওপিঠ । আর অনেক সুযোগসন্ধানী ভবঘুরে উদীয়মান নেতা যাদের পেশা ভাব দেখানো, বুক উচিঁয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করা । রাজনীতির ক্ষমতা আজ সেসব অজ্ঞ মানুষদের হাতে, তাই প্রজাদের দূঃখের দিন আর শেষ হয় না ।

যতদিন সন্তু লারমা আর প্রসিত খীসা আত্মা এবং অনাত্মা নিয়ে জ্ঞান অর্জন করছেন না ততদিন বোধয় ঐক্যতা আর সম্ভব হবে না । সন্তু লারমাকে রিপু গ্রাস করেছে তাই তিনি হয়ত বুঝতে পারছেন না যে তিনি একদিন মৃত্যুর অপরপারে চলে যাবেন । আর অন্যদিকে প্রসিত খীসার বয়স একটু বেশি থাকাতে মাথায় আসছে না যে তাকে ও একদিন সন্তু লারমার মতো হতে হবে ।

আঞ্চলিক রাজনৈতিক কর্মীদের কি করলে হুশ আসবে একটু বলুন !!!!!!!!!!!!!!

zp8497586rq

About the author

অমিত হিল

Permanent link to this article: http://chtbd.org/archives/1183

1 comment

  1. Arjyo chakma

    প্রতিহিংসা মনের চিত্ত যতক্ষন পর্যন্ত পরিহার করা যাবে না কোনো উন্নতি হবে না.

Comments have been disabled.